বুকের ব্যথার কারণ ও লক্ষন

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন
  • 381
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
    381
    Shares

বুকের ব্যথার কারণ ও লক্ষন

বুকের ব্যথার কারণ ও ধরন যাই হোক না কেন, তাকে মানুষ মারাত্মক হিসাবেই বিবেচনা করে থাকে। যদি কখনো বুকের ব্যথা হয়ে থাকে তবে নিশ্চয়ই লক্ষ করেছেন যে, ব্যথা খুব বেশি হলে মনে একটা ভয় চলে আসে। মনটা অনেক উদ্বিগ্ন হয়ে যায়। ব্যাপারগুলো খুবই স্বাভাবিক, কারণ বুকের ব্যথা অনেক সময়ই মারাত্মক কারণে হয়ে থাকে। তবে কিছু কিছু ছোট ছোট কারণে যে বুকের ব্যথা হয় না তা কিন্তু নয়।

বাচ্চাদের বুকের ব্যথা সাধারণত সর্দি, ঠাণ্ডা, ফুসফুসের প্রদাহ, ভাইরাল ফিভার, বাতজ্বর, TB হৃৎপিণ্ডে জন্মগত সমস্যা, হৃৎপিণ্ডের ভাল্বের সমস্যা, হৃৎপিণ্ডের প্রদাহ, অ্যাজমা, নিউমোনিয়া, আঘাতজনিত কারণ এবং অনেক সময় পেটে কোনো মারাত্মক সমস্যার জন্য বুকে ব্যথা অনুভূত হতে পারে। মধ্যবয়সী মানুষের বুকের ব্যথা হওয়ার কারণগুলো হলো, ভাইরাল ফিভার, অ্যাজমা, হার্টের ভাল্বের সমস্যা, জন্মগত হৃদরোগ, হৃৎপিণ্ডের প্রদাহ, ইসকেমিক হার্ট ডিজিজ, দীর্ঘমেয়াদি ফুসফুসের প্রদাহ হৃৎপিণ্ডে পানি জমা হওয়া, আঘাত জনিত কারণ,

Please Subscribe Us!

ফুসফুসে পানি জমা হওয়া, ফুসফুস ফেটে যাওয়া, ফুসফুসের ক্যান্সার, কখনো কখনো নিউমোনিয়া ইত্যাদি প্রধান কারণ। মধ্যবয়সে মানুষের বুকের ব্যথার প্রধান কারণ হলো ইসকেমিক হার্ট ডিজিজ, ফুসফুসে প্রদাহ এবং ফুসফুসে ক্যান্সার জাতীয় হৃদরোগ, পেটের সমস্যার জন্য বুকের ব্যথা। বয়োঃবৃদ্ধ জনিত ব্যক্তিদের বুকের ব্যথার প্রধান কারণ ইসকেমিক হার্ট ডিজিজ, হার্ট ফেইলুর, ফুসফুসের প্রদাহ ও ক্যান্সার জাতীয় অসুখ, হৃৎপিণ্ডের প্রদাহ ও হৃৎপিণ্ডের চারদিকে পানি জমা হওয়া, নিউমোনিয়া, অস্থিসন্ধিতে বাতজাতীয় সমস্যা, লিভারের সমস্যা ও পেটের বড় ধরনের কোনো সমস্যার জন্য বুকের ব্যথা হতে পারে।

ফুসফুসের দীর্ঘমেয়াদি প্রদাহ ও তার থেকে হার্ট ফেইলুর আরও একটি অন্যতম কারণ। বিভিন্ন কারণে বুকের ব্যথার ধরন আলাদা হয়ে থাকে। তবে সব সময় ধরন দেখে কারণ নির্ণয় করা যায় না। ঠাণ্ডাজনিত বুকে ব্যথা, মানুষ খুব সহজেই বুঝতে পারে আরও সহজে বোঝা যায় আঘাতজনিত বুকের ব্যথা। দীর্ঘসময় ধরে জ্বর, কাশির সঙ্গে বুকে ব্যথা থাকলে যক্ষ্মা ও নিউমোনিয়া এবং ফুসফুসের প্রদাহজনিত সমস্যা হওয়াই স্বাভাবিক।

Please Subscribe Us!

স্বল্পমেয়াদি জ্বরের ও শরীরে ব্যথার সঙ্গে বুকের ব্যথা হলে ভাইরাল ফিভার হতে পারে তবে ভাইরাল ফিভার হৃৎপিণ্ডে মারাত্মক প্রদাহ সৃষ্টি করতে পারে এবং প্রদাহের জন্যও বুকে ব্যথা হতে পারে। বাতজনিত বুকের ব্যথার সঙ্গে বুক নড়াচড়ার একটা সম্পর্ক থাকে তবে ব্যথা দীর্ঘস্থায়ী হলে বুক নড়াচড়া না করলেও সারাক্ষণ ব্যথা হতে পারে। হৃদরোগজনিত বুকে ব্যথার ধরন অন্য ব্যথা থেকে অনেকটাই আলাদা, হাঁটতে থাকলে বুকে প্রচণ্ড ব্যথা অনুভূত হয়। খুব বেশি মন খারাপ থাকলে, দুশ্চিন্তাগ্রস্ত থাকলে, আবহাওয়া বিরূপ থাকলে, কখনো উত্তেজিত হলে, তাড়াহুড়া করে স্বাভাবিক কাজ করতে গেলেও বুকের ব্যথা শুরু হয়ে যেতে পারে। এ ধরনের বুকের ব্যথার সঙ্গে শ্বাসকষ্ট, শরীর ফুলে যাওয়া, হার্ট ফেইলুরের লক্ষণ। EC, CXR, Color Doppler, Echocardiogram, ETT, Lipid profile ইত্যাদি  পরীক্ষা প্রায় ক্ষেত্রেই রোগ নির্ণয়ে সহায়তা করতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

4 × three =