একনেকে অনুমোদন পেল ‘বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতাল সুনামগঞ্জ

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
    4
    Shares

একনেকে অনুমোদন পেল ‘বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতাল সুনামগঞ্জ

আল-হেলাল, সুনামগঞ্জ: অবশেষে শত প্রতিকূলতা ও প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে অবকাঠামোগত উন্নয়নে পিছিয়ে থাকা পশ্চাৎপদ ভাটির জনপদ সুনামগঞ্জের লাখো মানুষের প্রাণের দাবী বাস্তবায়িত হলো। প্রতিষ্ঠিত হওয়ার স্বীকৃতি লাভ করলো ‘বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতাল সুনামগঞ্জ’। রোববার সন্ধ্যায় জেলাবাসী এই খবরে আনন্দ আত্মহারা হয়ে উঠেন। ‘বঙ্গবন্ধু সুনামগঞ্জ মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতাল’ নামে একনেক সভায় ১ হাজার ১০৭ কোটি ৮৮ লক্ষ ৯৮ হাজার টাকার এই প্রকল্পের অনুমোদন দেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অন্যান্য প্রকল্পের ব্যয় কর্তন হলেও পিছিয়ে থাকা সুনামগঞ্জবাসীর এই গণদাবীর প্রতি সহানুভূতিশীল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই প্রকল্পের বরাদ্দে হাত দেননি। পুরো বরাদ্দই অনুমোদন দিয়েছেন তিনি।

আগামী ২০১৯-২০২০ অর্থ বছর থেকে বঙ্গবন্ধু সুনামগঞ্জ মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতালে শিক্ষার্থী ভর্তি কার্যক্রম ও শুরু হবে। ৩ নভেম্বর শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় প্রকল্প অনুমোদনের বিষয়টি এই সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন সুনামগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান। তিনি জানিয়েছেন শেখ হাসিনা আবারও প্রধানমন্ত্রী হলে এই অঞ্চলে উন্নয়নের এক দিগন্ত উন্মোচিত হবে, উন্নয়ন আর সমৃদ্ধিতে বদলে যাবে সুনামগঞ্জ। উল্লেখ করা একান্ত আবশ্যক যে, অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নানের প্রচেষ্টায় বহুল প্রত্যাশিত এই প্রকল্পটি আলোর মুখ দেখেছে বলে মনে করেন জেলাবাসী। এদিকে এই প্রকল্পের সঙ্গে নার্সিং কলেজও যুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। নার্সিং এর উপরে সর্বোচ্চ ডিগ্রি নিতে পারবেন সেবিকারা। যা মেডিকেল শিক্ষাকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাবে।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, ১৯৭০ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যখন ভাটির জনপদে গণ সংযোগে আসেন তখন থেকেই সুনামগঞ্জে মেডিকেল কলেজ প্রতিষ্ঠার জন্য দাবি উঠেছিল। নানা ফোরামে উচ্চকণ্ঠে এ বিষয়ে কথা বলেছেন সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী আলহাজ্ব আব্দুস সামাদ আজাদ ও প্রধানমন্ত্রীর সাবেক সংসদ বিষয়ক উপদেষ্টা সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত এমপিসহ জেলার বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ। গণদাবির প্রেক্ষিতে প্রায় তিন বছর পূর্বে মেডিকেল কলেজটি আলোর মুখ দেখাতে তৎপরতা শুরু করেন অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী সৎ ও বিচক্ষণ রাজনীতিবিদ এমএ মান্নান। গত বছর একনেকের এক সভায় এ বিষয়টি আলোচনা হয়। তখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ বিষয়ে প্রকল্প গ্রহণের নির্দেশনা দেন সংশ্লিষ্টদের। আমলাতান্ত্রিক নানা জটিলতায় কাজ চলছিল ডিমেতালে। প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান সুযোগ পেলেই এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের স্মরণ করিয়ে দিচ্ছিলেন।

গত মার্চ মাসে সুনামগঞ্জ জেলার কেন্দ্রস্থল হিসেবে পরিচিত (দিরাই রাস্তার মোড়) মদনপুরে ৩৫ একর জমি অধিগ্রহণ করা হয়। এক্ষেত্রে আপসহীন ভূমিকা পালন করেন সাবেক জেলা প্রশাসক মোঃ সাবিরুল ইসলাম। গত ২৩ অক্টোবর প্রকল্পটির মূল্যায়ণ কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় সভাপতিত্ব করেন পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য সুনামগঞ্জের সন্তান যুগ্ম সচিব দেলোয়ার বখত। এই সভায় আলোচনার প্রেক্ষিতে প্রকল্পের ডিপিপি চূড়ান্ত করা হয়। গত ২৯ অক্টোবর স্বাস্থ্য সচিব সিরাজুল হক খান ডিপিপিরি চূড়ান্ত অনুমোদন দেন। চূড়ান্ত ডিপিপি অনুমোদনের পর গত ৩১ অক্টোবর এই মেডিকেল কলেজের জনবল নিয়োগ বিষয়ে সভা অনুষ্ঠিত হয়। এই সভায় জনবল নিয়োগের বিষয়টিও চূড়ান্ত হয়েছে। ওইদিনই মেডিকেল কলেজের চূড়ান্ত ডিপিপি একনেকে অনুমোদনের জন্য পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো হয়। জানা গেছে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রীর পক্ষে প্রকল্পের সমন্বয়কের ভূমিকা পালন করেন সুনামগঞ্জের সন্তান শিল্পপতি শ্যামল রায়।

অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান বলেন, আমরা সুনামগঞ্জবাসী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি চির কৃতজ্ঞ। বঙ্গবন্ধু সুনামগঞ্জ মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতাল নামে প্রকল্পটি অনুমোদনের ফলে আমাদের দীর্ঘদিনের প্রতীক্ষার অবসান ঘটেছে। আমাদের হাওরবাসীর স্বপ্নপূরণ হয়েছে। তিনি বলেন, আমাদের হাওরবাসীর প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খুবই সহানুভূতিশীল। তিনি একনেকের উপস্থাপিত অন্যান্য প্রকল্পের বরাদ্দ কর্তন করলেও আমাদের এই প্রকল্পের একটি টাকাও কর্তন করেননি। হাওরবান্ধব প্রধানীমন্ত্রীর এই অবদান সবসময় আমাদের স্বীকার করতে হবে। আর আগামীতে আবারও তাঁকে নৌকায় ভোট দিয়ে কৃতজ্ঞতা জানানো উচিত। প্রতিমন্ত্রী বলেন, ১৮ নভেম্বর থেকে নির্মাণ প্রক্রিয়ার আনুষঙ্গিক কাজ শুরু হবে। ২-৩ বছরের মধ্যেই নির্মাণকাজ শেষ হয়ে যাবে।

এদিকে ‘বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতাল সুনামগঞ্জ’ স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহন করে একনেকে তা অনুমোদন করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নানকে স্বাগত জানিয়েছেন সুনামগঞ্জ ৫ আসনের এমপি মুহিবুর রহমান মানিক, সুনামগঞ্জ ২ আসনের এমপি ড. জয়া সেন গুপ্তা, সুনামগঞ্জ ৪ আসনের এমপি এডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ, সুনামগঞ্জ-মৌলভীবাজার সংরক্ষিত আসনের এমপি এডভোকেট শামছুন নাহার বেগম শাহানা রব্বানী, জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ আশুতোষ দাস, জেলা সদর হাসপাতালের আরএমও ডাঃ রফিকুল ইসলাম, সুনামগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নাদের বখত, দিরাই পৌরসভার মেয়র মোশাররফ মিয়া, পদক্ষেপ এনজিও সংস্থার এরিয়া ম্যানাজার মুজিবুল হক, আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী জাহান, সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি বিজন সেন রায়, সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি লতিফুর রহমান রাজু, সাধারন সম্পাদক মাহবুবুর রহমান পীর, সুনামগঞ্জ সরকারী কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি আওয়ামীলীগ নেতা বুরহান উদ্দিন দোলন ও সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক দৈনিক ইত্তেফাক প্রতিনিধি বুরহান উদ্দিনসহ জেলার বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

4 × one =

x

Check Also

একটোপিক প্রেগনেন্সি বা জরায়ুর বাইরে গর্ভধারন-একটি জরুরী অবস্থা

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন32         32Sharesগর্ভধারনের সঠিক স্থান হচ্ছে জরায়ু। এর বাইরে ...

HPV সংক্রমণ এবং জরায়ু ক্যান্সার প্রতিরোধী টিকা

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন86         86SharesHPV বা হিউম্যান পেপিলোমা নামক এ ভাইরাসটি ...

গর্ভাবস্থার বিপদ চিহ্নগুলো জেনে রাখুন

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন69         69Sharesসব মায়েরাই চান সুস্থ স্বাভাবিক অবস্থায় সন্তান ...

নারী স্বাস্থ কথন’ বিষয়ক এক সেমিনার

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন3         3Sharesজুয়েল হিমু, টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার নলশোধা ...

যে মায়েরা নরমাল ডেলিভারি চান,তাদের জন্য…করণীয়গুলো

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন192         192Shares আজকাল লক্ষ্য করলে হরমাশাই দেখা যায় ...

গর্ভস্থ বাচ্চার হার্ট-বিট জানতে সিটিজি এর গুরুত্ব

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন155         155Shares গর্ভস্থ বাচ্চার হার্ট-বিট জানতে সিটিজি এর ...