নারীদের মেনোপোজ কি হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ায়?

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন
  • 12
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
    12
    Shares

মেনোপোজ বাড়ায় হৃদরোগের ঝুঁকি- মেনোপোজ বলা হয় একটি নির্দিষ্ট বয়সের পর নারীর ঋতুস্রাব বন্ধ হওয়া অবস্থাকে। সাধারণত ৪৫ থেকে ৫২ বছরের মধ্যে মেনোপোজ হয়। মেনোপোজের পর নারীদের হার্টের চারপাশে দ্রুত চর্বি জমতে থাকে, এই অবস্থা হৃদরোগের একটি বড় কারণ হতে পারে । “যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব পিটসবার্গ গ্র্যাজুয়েট স্কুল অব পাবলিক হেলথ” এর সহকারী অধ্যাপক সামার ইআই কুন্দ্রে তার গবেষণায় বলেন, ‘মহিলাদের মৃত্যুর একটি প্রধান কারণ হলো কার্ডিওভাসকুলার এবং এর ঝুঁকি সাধারণত বেড়ে যায় ৫০ বছরের পর কারণ ওই সময় মেনোপোজ অবস্থার সৃষ্টি হয়।

এই গবেষণাটি প্রকাশিত হয়েছিল দ্য ক্লিনিক্যাল এনড্রোক্রাইনোলজি অ্যান্ড ম্যাটাবোলিজম জার্নালে। এই গবেষণাটি যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫৬ নারীর ওপর করা হয়। তাঁদের রক্ত পরীক্ষা ও হার্ট সিটি স্ক্যান করা হয়। গবেষণায় অংশ নেওয়া নারীরা ছিলেন পঞ্চাশোর্ধ্ব এবং তাঁরা কোনো হরমোন প্রতিস্থাপন থেরাপি নিচ্ছিলেন না। মেনোপোজের সময় ইসট্রোজেন লেভেল ধীরে ধীরে কমে যেতে থাকে বা ছোট হতে থাকে।

আর ঠিক এর কারণেই কার্ডিওভাসকুলার সমস্যা হয় এবং হার্টে চর্বি বাড়তে থাকে। ইসট্রোজেন হরমোন আর্টারির দেয়ালকে শক্তিশালী ও নমনীয় করে। তাই ইসট্রোজেন লেভেল নিম্নতর হলে এর কারণে কার্ডিওভাসকুলার সমস্যা সৃষ্টি হয়। এ ছাড়া এই কমে যাওয়ার কারণে রক্তচাপ বৃদ্ধি পায়, বাজে কোলেস্টেরল বেড়ে যায়। এর ফলে হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ে। তাই বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মতে, নারীদের হৃদযন্ত্রকে ভালো রাখতে বিশেষত মেনোপোজের পর হৃদযন্ত্রকে ভালো রাখতে নারীদের স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস ও নিয়মিত ব্যায়াম করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

five × three =