জ্বর হলেই প্যারাসিটামল খাচ্ছেন? জেনে নিন তার ইতিহাস

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন
  • 665
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
    665
    Shares

প্যারাসিটামলের

প্যারাসিটামল ঔষধ 

প্যারাসিটামলের  ইতিহাস:

প্রাচীণ কাল থেকে জ্বর ও ব্যাথার জন্য মানুষ গাছের বাকল রস খাইতো। একটা হলো উইলো গাছ যার মধ্যে ছিলো “স্যালিসাইন” নামক কেমিক্যাল আরেকটি হলো “সিনকোনা গাছ” যার মধ্যে ছিল “কুইনিন”। অবশ্য পরে কুইনিন শুধু ম্যালেরিয়া রোগের মেডিসিন হিসেবে পরিচিতি পায়।।

ফেলিক্স হফম্যান নামের এক ভদ্রলোক এই স্যালিসাইনকে পরিশোধন করা শুরু করেন।অভাব থেকেই মানুষের সৃষ্টির ভাবনা আসে।। কারন তখন এই দুই গাছের ছাল এমন পরিমানে মানুষ খাইছিল যে গাছের মারাত্মক অভাব দেখা দিয়েছিল। বাংলাদেশের মানুষ সিনকোনা গাছের ছাল আনত ভারতের শিমলা থেকে।

১৮৮৬ সালে বিকল্প জ্বরের ঔষধ হিসেবে আবিষ্কৃত হয় এসিটানিলাইড এবং ১৮৮৭ সালে ফেনাসিটিন। কিন্তু এদের সাইড ইফেক্ট ছিলো মারাত্মক। বিশেষ করে Metheglobinuria পরে দেখা গেলো, যারা এসিটানিলাইড খেয়েছেন তাদের প্রস্রাবের মধ্যে এক ধরনের পদার্থ পাওয়া যাচ্ছে, যার স্বাদ তিতা। পরবর্তীতে জানা যায় ইউরিন স্যাম্পলের সেই বস্তুই পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশী খাওয়া মেডিসিন “প্যারাসিটামল”।

তারপর চলে যায় প্রায় ৫০ বছর। পিউর প্যারাসিটামল কেউ আলাদা করতে পারছিল না। ১৯৪৬ সালে আম্রিকার ইনস্টিটিউট অফ এনালজেসিয়া এন্ড সিডেটিভ ড্রাগকে মঞ্জুরি ও দায়িত্ব দেয়া হয় জ্বরের পিউর মেডিসিন আবিষ্কারের জন্য। অবশেষে বার্নার্ড ব্রডি ও জুলিয়াস এক্সেলরড নামের দুইজন প্যারাসিটামল আবিষ্কারে সক্ষম হন।

১৯৫৫ সালে সর্বপ্রথম প্যারাসিটামল হিসেবে আমেরিকার বাজারে আসে “টাইলিনল”। ১৯৫৬ সালে ব্রিটেনে ৫০০ মিগ্রা ট্যাবলেট বিক্রী শুরু হয় “প্যানাডল” নামে।। প্রথম কোম্পানি ছিল- ফ্রেড্রিক স্টার্ন কোম্পানি।।

তখন প্যারাসিটামলের বিজ্ঞাপন দেয়া হয়েছিলো “Gentle to stomach”… কারন তখন জ্বর কমানোর জন্য এসপিরিন খেয়ে গ্যাস্ট্রিক আলসারের সমস্যা বাধাইতো।। ১৯৬৩ সালে ব্রিটিশ ফার্মাকোপিয়াতে প্যারাসিটামল যোগ হয়।।

প্যারাসিটামল ওভারডোজ (১৬ টা ৫০০ মিগ্রা এর বেশি) হলে, তার Antidote Acetylcystine দিতে হয় লিভার ড্যামেজ থেকে রক্ষা করতে । দিতে হয় ১০ ঘন্টার মধ্যে। ১৯৬৮ সালে Acetylcystine আবিষ্কৃত হয়েছিল।

আরও পড়ুনঃ ক্ষত সারাতে এবার এল স্মার্ট ব্যান্ডেজ !

গণ সচেতনতায় ডিপিআরসি হসপিটাল লিমিটেড

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

fifteen + twenty =