লটকনের পুষ্টি ও ঔষধি গুণ

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  

লটকনের পুষ্টি ও ঔষধি গুণ

লটকনের পুষ্টি ও ঔষধি গুণ

লটকনের পুষ্টি ও ঔষধি গুণ

ছোট হলেও অবহেলা করার মতো নয়। লটকন একটি পুষ্টিকর ফল। “লটকনে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে। দিনে ২-৩ টি লটকন খেলে শরীরের ভিটামিন সি’র চাহিদা পূরণ হয়। এতে ভিটামিন ও খাদ্যশক্তিসহ নানারকম খনিজ উপাদান রয়েছে। রয়েছে নানা রকম পুষ্টি উপাদান যা শরীরকে সুস্থ রাখে ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। নানান ফলের ভিড়ে লটকনের গুণের কথা অনেকেই জানে না। এটি একটি পুষ্টিকর ফল। দেশি ফল হিসেবে দেখতে ছোট হলেও এর রয়েছে পুষ্টিগুণ সহ অনেক ঔষধিগুণ। ফল হিসেবেই ব্যাপকভাবে ব্যবহার হয়। অম্লমধুর ফল লটকন। মাঝারি আকারের চির সবুজ বৃক্ষ। ফল গোলাকার ক্যাপসুল পাকলে হলুদ বর্ণের হয়। ফলের খোসা ছড়ালে ৩/৪ টি বীজ পাওয়া যায়। লটকনের পুষ্টি ও ঔষধি গুণ নিচে দেওয়া হলো-

লটকনের পুষ্টি ও ঔষধি গুণ:

  • হাড় গঠনে সহায়তা করে।
  • রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।
  • গরমে তৃষ্ণা মিটায়।
  • খনিজ উপাদানে ভরপুর।
  • কোলন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়।
  • ‘গনোরিয়া’ রোগের প্রতিষেধক হিসেবে কাজ করে লটকনের বীজ।
  • ডায়রিয়া দূর করতে লটকন গাছের পাতার গুঁড়া বেশ কাজে দেয়।
  • লটকনের পাতা ও শিকড় খেলে পেটের নানা অসুখ ও জ্বর ভালো হয়ে যায়।
  • ঠাণ্ডা-কাশি সারাতে বেশ কার্যকর।
  • দাঁতের নানা ধরনের সমস্যার সমস্যার সমাধান করে থাকে লটকন।
  • উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে বেশ উপকারি।
  • শরীরের রক্তশূন্যতা পূরণ করে।
  • লটকনে থাকা ফাইবার হজমক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।
  • ভিটামিন সি ত্বক, দাঁত ও হাড় সুস্থ রাখে।
  • চর্মরোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে।
  • লটকন গা গোলানো ও বমি বমিভাব দূর করতে পারে।
  • মানসিক চাপ কমে।
  • মুখের স্বাদ বৃদ্ধি পায় এবং খাবারের রুচি বাড়ে।

লটকনের পুষ্টিমান:

প্রতি ১০০ গ্রাম লটকনে ৯ গ্রাম ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, পটাশিয়াম ও ক্রোমিয়াম থাকে। প্রতি ১০০ গ্রাম লটকনে ৫.৩৪ মি.গ্রা আয়রন থাকে। প্রতি ১০ গ্রাম লটকনে ১০.০৪ মি.গ্রা ভিটামিন বি ওয়ান ও প্রতি ১০০ গ্রামে ০.২০ মি.গ্রা ভিটামিন বি টু পাওয়া যায়। প্রতি ১০০ গ্রাম লটকনে ৯২ কিলোক্যালরি খাদ্যশক্তি পাওয়া যায়। প্রতি ১০০ গ্রাম লটকনে ১.৪২ গ্রাম প্রোটিন ও ০.৪৫ গ্রাম ফ্যাট থাকে।

মেডিকেলবিডি/আরএম/ ৬ জুন, ২০২১

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

fourteen − 1 =