ঔষধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের কবলে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স- ভোগান্তিতে রোগীরা

পোস্ট টি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন
  • 205
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
    205
    Shares

কে.এস.এম আরিফুল ইসলাম, মেডিকেল বিডি প্রতিনিধি: মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বিভিন্ন নামীদামী ঔষুধ বিক্রিয়াকারী কোম্পানির প্রতিনিধিদের মাত্রাতিরিক্ত বিব্রতকর হেনস্থার ফলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সেবা নিতে উপজেলার দূরদূরান্ত থেকে আগত অসহায় রোগীদেরকে পুহাতে হচ্ছে চরম ভোগান্তি। মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) সকাল ১০ থেকে ১২টা ৫৫ মিনিট পর্যন্ত স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সএ গভীরভাবে নজরদারি করে দেখা যায় বেলা বাড়ার সাথে সাথেই যতই রোগীরা আসছেন ততই ভিড় জমছে বিভিন্ন নামীদামী ঔষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের ঔর্ধত্বপূর্ণ দৌরাত্ম্য ও নানান কলাকৌশল এমনকি অনেকে আবার জোর করেও রোগীদের হাত থেকে নিয়ে দেখছেন কর্তব্যরত ডাক্তারদের দেওয়া প্রেসক্রিপশনটি, কেউবা আবার যত্নসহকারে ছবিও তোলছেন ।

ঔষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের এমন কাজের জন্য কোনরূপ দেখেও না দেখের বুঝেও না বুঝার ভান করছেন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর দায়িত্বশীল কর্তাব্যক্তিরা। উল্টো এবিষয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বর্তমানে দায়িত্বপ্রাপ্ত ডাক্তার সাখাওয়াত হোসেন এর কাছে জানতে চাইলে তিনি সৌজন্যস্বত্ব সহযোগীতা না করে বরণ অনেকটা বিরক্তবোধ করেন । নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সেবা নিতে আসা এক রোগী সাথে কথা বলে জানা যায় তিনি প্রায় আধ ঘন্টা লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট কাঁটেন তার পরেও তিন বার তাকে পরিবর্তন করতে হয়েছে তিনটি কর্তব্যরত ডাক্তারের চেম্বার ।

তার পরেও কর্তব্যরত ডাক্তারকে উনার নিজ চেম্বারে পাওয়া যাইনি ,এমন কি অনেকক্ষণ প্রতিক্ষা করেও দেখাও মেলেনি উনাদেরকে। পরিশেষে তৃতীয় চেম্বারের বাহিরে অনেকক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়েও কর্তব্যরত ডাক্তার কে না পেয়ে উনার সহকারীর কাছ থেকে প্রেসক্রিপশন নেন। চেম্বার থেকে বের হতে না হতেই উনাকে ঘিরে ধরে সেই বিভিন্ন নামীদামী ঔষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিরা তখন শুরু হয় উনি সহ বাকি রোগীদের হাত থেকে প্রেসক্রিপশন নেওয়ার নানান ধরণের কলাকৌশল ও ঔর্ধত্বপূর্ণ আচরণ। আবার অনেকেই নারী রোগীদের সাথে করছে বেফাঁস মন্তব্য। হাসপাতালের ভিতরেও নানান স্থানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রাখা আছে নামীদামী সেই ঔষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের মোটরসাইকেল যার ফলে হাসপাতালের ভিতরে ও প্রবেশপথে তৈরি হচ্ছে তীব্রতর যানজট। এতে করে রোগী সহ সাধারণ পথচারীদের রাস্তা চলাচলপথে অনেক ব্যগ্রতা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

sixteen − 2 =